news-details
hollywood

কোরিয়ান হরর ‘ট্রেন টু বুসান’র সিকুয়েল আসছে ‘পেনিনসুলা’

২০১৬ সালের কোরিয়ান হরর সিনেমা ‘ট্রেন টু বুসান’ বিশ্বজুড়ে দর্শকরা দারুণ উপভোগ করেন। জম্বিদের ঘিরে রোমহর্ষক ঘটনাবহুল সিনেমাটির সিকুয়েল ‘পেনিনসুলা’ আসছে চলতি বছরেই। আপাতত হরর-অ্যাকশন সিনেমাটির ট্রেলার প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে। 

একই জগত ও একই দেশের ঘটনা নিয়েই ‘পেনিনসুলা’ নির্মিত। তবু ‘ট্রেন টু বুসান’র সঙ্গে তার সামান্যই মিল। জম্বিদের মধ্যে মাত্র দু’জনকে সবশেষ টিকে থাকতে দেখা গেছে ট্রেলারে – সু-আন এবং সিওং-ক্যেওং। 

‘পেনিনসুলা’র গল্পটি ‘ট্রেন টু বুসান’র চার বছর পরের। এতদিনে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রায় সব মানুষই মানুষের মাংসখেকো দানবে পরিণত হয়েছে, যাদের বলা হয় ‘জম্বি’। এমন প্রেক্ষাপটেই নির্মিত সিনেমাটি। তবে প্রথম কিস্তির থেকে অনেক দিক থেকেই ভিন্ন পেনিনসুলা। প্রথম পর্বের পুরো কাহিনীই ছিল একটি ট্রেনের ভেতর সীমাবদ্ধ। কিন্তু এবার প্রেক্ষাপট আরও বৃহৎ। এবার মানুষের সাথে মানুষের সংঘর্ষ রয়েছে। আর সকলের সাধারণ শত্রু জম্বিদের সঙ্গে লড়তে হয়েছে আরও ভয়ংকর যুদ্ধে।

আরেকভাবে বলা যায় ‘পেনিনসুলা’র সঙ্গে অনেক ক্ষেত্রে মিল খুঁজতে পারেন জনপ্রিয় টিভি সিরিজ ‘দ্য ওয়াকিং ডেড’ কিংবা ড্যানি বয়েলের ’২৮ ডেস লেটার’-এর। সেখানে দেখানো হয়, মানুষ জম্বিদের থেকেও বেশি ভয়ংকর শত্রু। কারণ মানুষ ছদ্মবেশে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারে। কিন্তু জম্বিদের বেঁচে থাকার জন্যই মানুষের মাংস খাওয়া দরকার।

কোরিয়ান হরর ‘ট্রেন টু বুসান’র সিকুয়েল আসছে ‘পেনিনসুলা’

২০১৬ সালের কোরিয়ান হরর সিনেমা ‘ট্রেন টু বুসান’ বিশ্বজুড়ে দর্শকরা দারুণ উপভোগ করেন। জম্বিদের ঘিরে রোমহর্ষক ঘটনাবহুল সিনেমাটির সিকুয়েল ‘পেনিনসুলা’ আসছে চলতি বছরেই। আপাতত হরর-অ্যাকশন সিনেমাটির ট্রেলার প্রকাশিত হয়েছে ইউটিউবে। 

একই জগত ও একই দেশের ঘটনা নিয়েই ‘পেনিনসুলা’ নির্মিত। তবু ‘ট্রেন টু বুসান’র সঙ্গে তার সামান্যই মিল। জম্বিদের মধ্যে মাত্র দু’জনকে সবশেষ টিকে থাকতে দেখা গেছে ট্রেলারে – সু-আন এবং সিওং-ক্যেওং। 

‘পেনিনসুলা’র গল্পটি ‘ট্রেন টু বুসান’র চার বছর পরের। এতদিনে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রায় সব মানুষই মানুষের মাংসখেকো দানবে পরিণত হয়েছে, যাদের বলা হয় ‘জম্বি’। এমন প্রেক্ষাপটেই নির্মিত সিনেমাটি। তবে প্রথম কিস্তির থেকে অনেক দিক থেকেই ভিন্ন পেনিনসুলা। প্রথম পর্বের পুরো কাহিনীই ছিল একটি ট্রেনের ভেতর সীমাবদ্ধ। কিন্তু এবার প্রেক্ষাপট আরও বৃহৎ। এবার মানুষের সাথে মানুষের সংঘর্ষ রয়েছে। আর সকলের সাধারণ শত্রু জম্বিদের সঙ্গে লড়তে হয়েছে আরও ভয়ংকর যুদ্ধে।

আরেকভাবে বলা যায় ‘পেনিনসুলা’র সঙ্গে অনেক ক্ষেত্রে মিল খুঁজতে পারেন জনপ্রিয় টিভি সিরিজ ‘দ্য ওয়াকিং ডেড’ কিংবা ড্যানি বয়েলের ’২৮ ডেস লেটার’-এর। সেখানে দেখানো হয়, মানুষ জম্বিদের থেকেও বেশি ভয়ংকর শত্রু। কারণ মানুষ ছদ্মবেশে বিশ্বাসঘাতকতা করতে পারে। কিন্তু জম্বিদের বেঁচে থাকার জন্যই মানুষের মাংস খাওয়া দরকার।